তথ্যে গড়মিল বাজেট তৈরি কঠিন করে তুলছেঃ অর্থমন্ত্রী




অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, এখন পরবর্তী বাজেট প্রণয়নে প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

মঙ্গলবার তিনি বলেন, পরিসংখ্যানগত সংগঠন থেকে পাওয়া তথ্য এবং সরকারী কাগজপত্রে পাওয়া তথ্য নির্ভরযোগ্য নয় এবং একইসাথে এদের মধ্যে ব্যাপক গড়মিল রয়েছে। 

রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় নেতৃস্থানীয় অর্থনীতিবিদ ও পেশাদারদের সঙ্গে সাক্ষাৎ এবং দ্বিতীয় বাজেটপূর্ব মতামত বিনিময় সভার পর তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের পরিসংখ্যানগত তথ্য নির্ভরযোগ্য নয় এবং অফিসিয়াল তথ্যের সাথে এর যথেষ্ট অমিল রয়েছে।এগুলো ঠিক করা দরকার।

অর্থমন্ত্রী বলেন, পরিকল্পনা বিভাগ, পরিসংখ্যান বিভাগের  তথ্য এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিভাগে দ্বারা উৎপাদিত তথ্য উল্লেখযোগ্যভাবে ভিন্ন।

আমি এরইমধ্যে একটি কমিটি গঠন করেছে বিষয়টি দেখার জন্য।এটা ঠিক করা কঠিন কিছু নয়।আমাদের এজেন্সিগুলোর সহায়তা দরকার তিনি সভায় বলেন।

তিনি দেশের ভুমি ব্যবস্থাপনার বিষয়টি একটি “পুরোপুরি ব্যর্থতা” বলে অভিহিত করে এর যাবতীয় পদক্ষেপের সমাপ্তি টানেন।যদিও আওয়ামীলীগ সরকারের প্রথম ও দ্বিতীয় মধ্যস্বত্বে তিনি এই পরিস্থিতি সমাধানের চেষ্টা করেছিলেন।

নিজের সমালোচনা করে তিনি বলেন, আমি এই ব্যাপারে পুরোপুরি ব্যর্থ।

তিনি কৃষিজমি রক্ষা করতে গ্রামে বহুতল ভবন নির্মাণের প্রচার সম্পর্কে অর্থনীতিবিদদের মতামতের পুনরাবৃত্তি করেন। 

তিনি বলেন, বেসরকারি বিনিয়োগকারীদের গন্তব্য সন্দেহজনক হয়ে গেছে,বিশেষ করে মনে হচ্ছে তাঁদের প্রধান উদ্দেশ্য কালো টাকার মালিক হওয়া।

"ব্যক্তিগত বিনিয়োগকারীগণ বিদেশে তাদের সম্পদের বিনিয়োগ করছেন," অর্থমন্ত্রী অর্থনীতিবিদদের বলেন।

তিনি উল্ল্যেখ করেন যে দেশের শস্য বীমা উপেক্ষিত রয়ে যাচ্ছে।

অর্থনীতিবিদগণ ফসল বীমা প্রচারের প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, অবকাঠামো প্রকল্প বিষয়ে অর্থ তথ্য বিস্তারিত হওয়া বাঞ্ছনীয়।

তিনি অর্থনীতিবিদদের বাজেটে পাবলিক এন্টারপ্রাইজ তথ্যের ওপর বিশেষ জোর দিতে বলেন।

জেলা বাজেটের ক্ষেত্রে তার ব্যর্থতা স্বীকার করে অর্থমন্ত্রী বলেন,তাঁর ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও এটা সম্ভব হল না।

"জেলা বাজেটের সফল বাস্তবায়নের জন্য প্রশাসনিক সংস্কারের প্রয়োজন রয়েছে," তিনি সভায় জানান।

তিনি বলেন, ব্যাংকিং কমিশনের সাথে আলোচনা হয়েছিলো এ বিষয়ে তবে সেরকম কোন লাভ হয় নি।

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক অর্থমন্ত্রী এম সাইদুজ্জামান, সাবেক সম্পাদক ডা তারেক, সিপিডির বিশিষ্ট সহকর্মী দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য ও ড আহসান এইচ মনসুর।

Kamrunnahar Dana এর ছবি

About the Author

About: 

আমি ডানা, জাহাংগীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে কম্পিউটার সায়েন্স বিষয়ের ওপর এমএস করছি। জীবনের লক্ষ্য বাবার একজন সার্থক সন্তান, বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন সার্থক স্নাতক, সার্থক চাকুরীজীবি এবং ভবিষ্যতে একজন সার্থক গৃহিণী, সার্থক মা সর্বোপরি একজন সার্থক আমি হওয়া।