প্রবাসী ব্যাংক বাণিজ্যিক ব্যাংকে পরিণত হতে যাচ্ছে




সরকার প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংককে আড়াই মিলিয়ন অর্থ সাহায্য দিচ্ছে ব্যাংকটিকে তাফসিল ব্যাংকে পরিণত করার জন্য।

মঙ্গলবার অর্থমন্ত্রণালয়ে অর্থমন্ত্রী এ এম এ মুহিত এর উপস্থিতিতে এক সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বলে জানা যায়।

ব্যাংকটির তফসিলি ব্যাংকে রূপান্তরের জন্য পরিশোধিত মূলধন হিসেবে ৪ কোটি টাকা প্রয়োজন। বর্তমানে ব্যাংকটির পরিশোধিত মূলধন ১ বিলিয়ন।

সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে যে, ব্যাংকটির সংখ্যাগরিষ্ঠ শেয়ারহোল্ডার হিসেবে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড(WEWB) অবশিষ্ট টাকা ইকুইটি হিসাবে ৫০০ মিলিয়ন প্রদান করবে। 

সভায় এটাও বলা হয়েছে যে, এটি তফসিলি ব্যাংকে রূপান্তরিত হওয়ার পরে,পিকেবি আমানত সংগ্রহ ও ঋণ প্রদানের মাধ্যমে অভিবাসী শ্রমিক, বিদেশ ফেরত, এবং তাদের আত্মীয়দের মধ্যে সীমিত আকারে সাধারণ ব্যাংকিং কার্যক্রম শুরু করবে।

কর্মকর্তাদের মতে, পিকেবি একটি অ তফসিলি ব্যাংক হওয়ায়,এটির কোন তফসিলি ব্যাংক কার্যাবলী চালানোর অনুমতি নেই।

সম্প্রতি পিকেবি কে তাফসিলি ব্যাংকে রূপান্তরিত করার পদক্ষেপ নেয়ার মূল উদ্দেশ্য বৈধ চ্যানেলের মাধ্যমে দেশের রেমিটেন্স বৃদ্ধি করা যেহেতু আমাদের দেশের আভ্যন্তরীণ রেমিটেন্স প্রবাহ কমে যাচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপস্থিত চ্যানেলের পাশাপাশি পিকেবি এর মাধ্যমে রেমিটেন্স বাড়াতে সাহায্য করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দেন।

গত ডিসেম্বরে, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান (MEWOE) মন্ত্রণালয়ের একটি আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় পিকেবি কে তাফসিল ব্যাংকে পরিণত করার উপায় এবং এটির পরিশোধিত মূলধন বৃদ্ধির জন্য অর্থ সংগ্রহের উপায় সম্বন্ধে আলোচনা করা হয়।

কর্মসংস্থানের জন্য বিদেশে যাচ্ছে এমন শ্রমিকদের সমান্তরাল মুক্ত ঋণ প্রদান, দেশে ফেরার পর দেশের মধ্যে পুনর্বাসন এবং কর্মসংস্থানের জন্য ঋণ প্রদান,রেমিটেন্স পাঠানো সহজতর করা এবং মজুরি উপার্জনকারীদের দেশে বিনিয়োগ করতে উৎসাহিত করার জন্য ২০১০ সালে পিকেবি প্রতিষ্ঠিত হয়।

ব্যাংকটির সারাদেশে ৫৪ টি শাখা এবং হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে একটি বুথ রয়েছে। এটা, আমানত গ্রহণ করে, অভিবাসী শ্রমিক ও বিদেশ ফেরত শ্রমিকদের ঋণ বর্ধিত করে এবং বৈদেশিক মুদ্রা ক্রয় বিক্রয় করে।

২০১৬ সাল পর্যন্ত পিকেবি ৮৯০ মিলিয়ন টাকা ঋণ মঞ্জুর করেছে।

Kamrunnahar Dana এর ছবি

About the Author

About: 

আমি ডানা, জাহাংগীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে কম্পিউটার সায়েন্স বিষয়ের ওপর এমএস করছি। জীবনের লক্ষ্য বাবার একজন সার্থক সন্তান, বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন সার্থক স্নাতক, সার্থক চাকুরীজীবি এবং ভবিষ্যতে একজন সার্থক গৃহিণী, সার্থক মা সর্বোপরি একজন সার্থক আমি হওয়া।